লকার কাণ্ড

রবিবার সকালে প্রাতঃরাশ সারতে সারতে দত্তবাবু চিন্তা করলেন যে সেদিন নিজের খাজানা চেক করবেন। নিজের সেই ছোট আলমারি খুলে সব ব্যাঙ্কের পাসবুক, ফিক্সড ডিপসিটের রসিদ, বিকাস পত্র, জীবন বীমার পলিসি ইত্যাদি বার করে সব মাটিতে ছড়িয়ে ফেললেন। তারপর সব আলাদা করে একটার উপর একটা আলাদা আলাদা করে সাজালেন। দত্তগিন্নী দরজার ফাঁক গিয়ে উঁকি মেরে দেখলেন … পড়তে থাকুন লকার কাণ্ড

নতুন চেয়ারম্যান

গাড়ী চলছে ব্যাঙ্কের হেড অফিসের দিকে, পিছনের সীটে বসে সিং সাহেব সংবাদ পত্র উঠিয়ে নিলেন। কিন্তু কোন সংবাদেই ওনার উৎসাহ নেই যেন। নামিয়ে রাখলেন সংবাদ পত্র। ইন্টারভ্যু তো  ভালোই হয়েছে মনে হচ্ছে। সিফারিস ঠিক সময় মতন পৌঁছেও গিয়েছে। এবার চেয়ারম্যান হবার সুযোগ মনে হয় 50:50। দুই-একদিনের মধ্যেই জানা যাবে কি হোল। এই সব নানা চিন্তা … পড়তে থাকুন নতুন চেয়ারম্যান

ক্লোজিং উৎসব

আজকাল ব্যাঙ্কে সব কম্পিউটার লেগে গেছে। সব ব্যাঙ্কেই এখন কেন্দ্রীভূত ব্যাংকিং চলছে। ব্রাঞ্চ যেখানেই থাক না কেন প্রধান বই খাতা ব্যাঙ্কের কম্পিউটারে কেন্দ্রীভূত। আজকাল তাই সেই ক্লোজিং মহোৎসব লুপ্ত হয়ে গিয়েছে। সেই ব্যাংকিংও নেই, সেই মজাও আর নেই। বহু বছর পূর্বে, তখন আমি সদ্য ব্যাঙ্কে চাকুরীরত। সেই সময় ব্যাঙ্কের সমস্ত কাজ হাতেই করা হতো। ৩১ … পড়তে থাকুন ক্লোজিং উৎসব

হিন্দি দিবস

আমাদের রিজনাল ম্যানেজার সাহেব সকালে ভুঁড়ির উপর লাল টাই টেনে সেট করছেন, আর আয়নার দিকে তাকিয়ে বলছে — “ওকে"। চিরুনি বার কর মাথার উপরে যে আঠ-দশটি চুল অবশিষ্ট আছে তাদের উপরে বার কয়েক বুলিয়ে সেট করে নিলেন। টেনেটুনে প্যান্টের উপর বেল্ট বাঁধলেন একটু কষ্ট করে। ভুঁড়িটা যেন কমছেনা। আর কি? সামনে দুই মাসের মধ্যে রিটায়ারমেন্ট। … পড়তে থাকুন হিন্দি দিবস

ফেয়ারওয়েল

WhatsApp-এ এই গল্পটা পড়লাম। ভালো লাগলো, তাই এখানে শেয়ার করছি। দক্ষিণ কলকাতার নামী এই রেঁস্তোরার এক কোনে আজ আনন্দমেলা। সাদা চুল আর ঘোলাটে চোখের বছর সত্তরের এক বৃদ্ধকে ঘিরে ওরা দশজন।অনন্যা শ্বেতা পঞ্চতপা অরণ্য দ্যুতি জয়িতা পিনাক দেবদূত রিমা আর অর্চ্চিস্মান। দামী জামা কাপড়ের মোড়কে বেমানান মানুষটি অবাক হয়ে দেখছে ওদের। ঝকঝকে চেহারার এই ছেলে … পড়তে থাকুন ফেয়ারওয়েল

হাই-টি মিটিং

তখন আমাদের রিজনাল ম্যানেজার গোয়েল সাহেব নিজের কেবিনে বসে ফাইল সই করছেন। সন্ধ্যা হয়ে এসেছে। বাড়ী যাবার সময় হয়ে এসেছে। ড্রাইভারকে তলব করা হয়ে গেছে। এমন সময় ফোন বাজে। জোনাল অফিস থেকে। ফোন করেছে জোনাল ম্যানেজারের P.A.। জোনাল ম্যানেজার সাহেব আগামী কাল ভিজিটে আসছেন। রিজনাল অফিসে পোঁছাতে প্রায় বিকেল ৪টে বেজে যাবে। ফোন পেয়েই গোয়েল সাহেব … পড়তে থাকুন হাই-টি মিটিং

অডিটে কুকুর!

মাথুর সাহেব আমাদের মেন ব্রাঞ্চের সিনিয়র ম্যানেজার, প্রবীণ ব্যক্তি, দীর্ঘ তিন দশকের চাকুরী জীবনে অনেক অডিট দেখেছেন। তবুও অডিট এবং অডিটরদের প্রতি একটা আশঙ্কা মনে সব সময় থাকে। ব্যাঙ্কে অডিটের সীমা নেই আর নেই অডিটরদের। বিভিন্ন নামে তারা বিভিন্ন সময়ে চলে আসে। কেউ আসে সময় মতো, কেউ বা আসে খবর দিয়ে আর কেউ তো হটাৎ … পড়তে থাকুন অডিটে কুকুর!

দাঁতের ডাক্তার

আমাদের রিজনাল ম্যানেজার গোয়েল সাহেব আজকাল খুব খুশ থাকেন। তার গোল, কালো মুখে সাদা দাঁতের ঝিলিক দেওয়া হাসি একটু বেশী দেখা যাচ্ছে আজকাল।  বিকেলে সব বিভাগের ম্যানেজারদের নিজের বাড়ীতে বিয়ার পার্টিতে ডেকেছেন। গোয়েল সাহেব নিজেই বিয়ারের খুব ভক্ত। কিন্তু হটাৎ কেন বিকেলে এতো সদয় হয়ে আমাদেরকে ডেকেছেন, এই নিয়ে লাঞ্চ টাইমে অফিসে বেশ আলোচনা চলেছে। … পড়তে থাকুন দাঁতের ডাক্তার

বার্ষিক কার্য্য-সমীক্ষা

আমাদের রিজনাল ম্যানেজার গোয়েল সাহেব খুব নিয়মনিষ্ঠ ব্যক্তি। সব কাজ উনি এক প্রণালীবদ্ধ ভাবে করেন। শৃঙ্খলার হেরফের হতে পারবে না। টেকো মাথায় যে কয়েকটি চুল আছে তাদেরও যেন একটুও নড়ার অনুমতি নেই। রোজ উনি জেল লাগান আর তারপরে দিনে প্রায় সাত-আঠবার চিরুনি দিয়ে আঁচড়ে নেন। উনি যদি কখনো ছুটি যান, তাহলে ওনার PA সব খবরের … পড়তে থাকুন বার্ষিক কার্য্য-সমীক্ষা

বড়ো সাহেবের ড্রাইভার

গোয়েল সাহেব আমাদের ব্যাঙ্কের রিজনাল ম্যানেজার — বড়ো সাহেব। উনি বসে আছেন নিজের অফিসে। পিওন গিয়ে তার সামনে হেড অফিসের আর জোনাল অফিসের ডাক, চিঠিপত্র রেখে এসেছে। সকাল সকাল উনি খাম খুলে বিশেষ চিঠিগুলি পড়েন আর তারপরে যে বিভাগের সম্বন্ধিত চিঠি, সেই বিভাগে পাঠিয়ে দেন। একটা সরু কাঠের ছুরি দিয়ে সাবধানে সব খামগুলি খোলেন। সেইদিনও এই … পড়তে থাকুন বড়ো সাহেবের ড্রাইভার